বাণিজ্য মেলা চলবে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত

363
0

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আগামী বছর থেকে পূর্বাচলের ৪ নম্বর সেক্টরে নির্মিত বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের মেলা বেশ ভালো পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে দর্শনার্থীদের জন্য সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সকলে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

এ বছর বাংলাদেশসহ মোট ২১ টি দেশের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে। গত বছর মোট ৬৩০টি ছোট-বড় স্টল ছিল, এবার করা হয়েছে ৪৮৩টি। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের রপ্তানি বাণিজ্য বাড়ছে। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে রপ্তানির পরিমান হবে ৪৫,৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০২১ সালে এ রপ্তানির পরিমান হবে ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বর্তমানে দেশের উন্নতি চোখে পরার মতো। বিশ্বাবাসী বাংলাদেশের উন্নতির প্রশংসা করছে। বাংলাদেশ পাকিস্তান থেকে সবগুলো সেক্টরে এগিয়ে, কোন কোন ক্ষেত্রে ভারতের চেয়েও এগিয়ে বাংলাদেশ। ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সালে হবে উন্নত বাংলাদেশ।

বাণিজ্যমন্ত্রী আজ (০৩ ফেব্রুয়ারি) শেরেবালা নগরস্থ বাণিজ্য মেলা মাঠে অনুষ্ঠিত ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা-২০২০ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি মেলায় অংশ গ্রহণকারী দেশী-বিদেশী প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা গুলোকে ১৩টি ক্যাটাগরিতে ৩৮টি ক্রেষ্ট এবং সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। মেলায় অংশগ্রহনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহ প্রদান করতে স্থাপত্য সৌন্দর্য্য, পণ্যের গুনগতমানসহ বিভিন্নদিক বিবেচনা করে এ ক্রেষ্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

বিভিন্ন কারনে মেলা বন্ধ থাকায় মেলার সময় বাড়ানো হয়েছে ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ পর্যন্ত। আগে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মেলা চলার কথা ছিল।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস-চেয়ারম্যান ফাতিমা ইয়াসমিন, সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআই এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. সিদ্দিকুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ওবায়দুল আজম, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর মহাপরিচালক-১ অভিজিৎ চৌধুরী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।