পূর্বাচলে হবে আগামী বাণিজ্য মেলা

230
0

২০২১ সাল থেকে রাজধানীর পূর্বাচলে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য সেখানে বাণিজ্য মেলার নিজস্ব কমপ্লেক্স করা হচ্ছে। এ বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা পূর্বাচলের নিজস্ব কমপ্লেক্সে হবে বলে ‘প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন। প্রথম দিকে একটু সমস্যা হবে। তবে সেখানে যাতে লোকজন যেতে পারে, সে বিষয়ে সবরকম ব্যবস্থা আমরা নেব। সেখানে আন্তর্জাতিক মানের একটা সেন্টার করা হয়েছে। আমরা সবরকমভাবে চেষ্টা করব, আগামী বছর শিফট করার জন্য।
সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় সমাপনী অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এ তথ্য জানিয়েছেন। মেলার সমাপনী ঘোষণার পর আগামীকাল মঙ্গলবার মেলা শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। গত ১ জানুয়ারি মেলার উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের জন্য গত ৩১ জানুয়ারি, ১ ফেব্রুয়ারি ও ১০ জানুয়ারি বাণিজ্য মেলা বন্ধ ছিল। মেলার মেয়াদ বাড়াতে ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাণিজ্য মেলা আরও দুই/তিন দিন বাড়ানো যায় কি না, বিষয়টা বিবেচনায় রাখব।’
বাংলাদেশ ছাড়াও এবারের মেলায় ২০টি দেশের ৫৫টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। দেশগুলো হলো ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, নেপাল, হংকং, ভুটান, ব্রুনাই, সংযুক্ত আরব আমিরাত, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি ও ইতালি।
মেলা কর্তৃপক্ষ জানায়, এবারের মেলায় ৪৯০টি দেশি-বিদেশিদের প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন ও স্টল করা হয়। এর মধ্যে সাধারণ প্যাভিলিয়ন ১১টি, সাধারণ মিনি প্যাভিলিয়ন ৫৭টি, প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন ৬৪টি, প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন ৪০টি, রিজার্ভ প্যাভিলিয়ন ৫টি, রিজার্ভ মিনি প্যাভিলিয়ন ৭টি, রেস্টুরেন্ট ২টি, ফুড স্টল ৩৫টি, স্ন্যাক্স বুথ ৭টি, সাধারণ স্টল ১২৩টি, প্রিমিয়ার স্টল ৮৪টি, বিদেশি প্যাভিলিয়ন ২৭টি, বিদেশি মিনি প্যাভিলিয়ন ১১টি এবং বিদেশি প্রিমিয়ার স্টল ১৭টি। এছাড়াও ৩টি রক্তদান কেন্দ্র, ২টি মা ও শিশু পরিচর্যা কেন্দ্র এবং একটি প্রাথিমিক চিকিৎসা কেন্দ্র ছিল। তিনটি রক্তদান কেন্দ্র থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১ হাজার ১৬২ ব্যাগ রক্ত সংগৃহীত হয়।