কাউন্সিলর নাঈমের বিচারের দাবিতে স্মারকলিপি

261
0

ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ৪৯ ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান নাঈম ও তার পরিবারের সদস্যদের দখল ও চাঁদাবাজী এবং অত্যাচারের বিচার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন ‘আমরা নির্যাতিত জনতা’ নামের একটি সংগঠন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, নাঈম তার পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি এলাকার স্কুলের ছাত্র, বখাটে, বেকার, মস্তান এদের ৫০-৬০ জন নিয়ে দল গঠন করেছে। এদের মাধ্যমে কোথায় কোন ফাঁক ফোকর আছে, দুর্বলতা আছে তা সংগ্রহ করে। এরপর তার ভাই নাজমুল ব্যাপারী ও হুমায়ুন কবিরের মাধ্যমে, ঝামেলা যুক্ত জমির মালিককে বিপদে ফেলার জন্য বায়না দলিল, চুক্তিনামা, দখলদারী পাকার পরিকল্পনা করেন। জমি দখলে লক্ষ্যে তার বাবা-মফিজ ব্যাপারীকে বানানো হয় সভাপতি, নাইম নিজে হয় মহাসচিব অথবা কোন পদে না থেকেই কমিটি দখল করে পরিচালনা করে এবং কিছু নিরীহ লোকদের বাধ্যকরে সদস্য হতে।তারা নিজেরা মিলেই সব আইন কানুন রচনা করে, সম্পদ দখল করে। তাদের বিরুদ্ধে কারো কিছু বলার সাহস নেই। এই অবস্থা আনিসুর রহমান নাঈম ও তার পরিবার সন্ত্রাসী চক্রের নির‌্যাতন থেকে রেহায় পেতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

স্মারকলিপিতে আরো বলা হয়, দলের মধ্যে এমন শুদ্ধি অভিযান চালানোর পরও ৪৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান নাঈমকে আইনের আওতায় না এনে বরং তাকে ঢাকা মহানগর উত্তরের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে সদ্য নির্বাচিত করায় আমরা ভীষণভাবে হতাশ। নাঈমের মতো একজন মাদক ব্যবসায়ী, ভূমি দখলবাজ, চাঁদাবাজ, অস্ত্রবাজ, সন্ত্রাসী, অর্থ পাচারকারী, নকল টাকা তৈরির মতো এমন অপরাধীকে এমন পদন্নোতি দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ওই শুদ্ধি অভিযান প্রশ্নের মুখে পড়েছে।