কণার উঠেছে চাঁদ

453
0

অভি মঈনুদ্দীন : আগামী ঈদে এই সময়ের নন্দিত কন্ঠশিল্পী দিলশাদ নাহার কণা রঙ্গন মিউজিক’র ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশের জন্য জামাল হোসেনের লেখা একটি গান গেয়েছেন। কণা’র ভাষ্যমতে আগামী ঈদের জন্য তিনি এই একটি মাত্রই গান গেয়েছেন। কারণ বিগত বেশকিছুদিন যাবত কণা তার গ্রামের বাড়ি গাজীপুরের শ্রীপুরের ঢোয়াই বাড়িতে আছেন। শুধুমাত্র জামাল হোসেনের এই একটি গানে কন্ঠ দিতে এবং আরো কিছু কাজ করতে কণা ঢাকা গিয়েছিলেন।
‘চাঁদ উঠেছে’ গানটির সুর সঙ্গীত করেছেন আহমেদ হুমায়ূন। তার সুর সঙ্গীতে এর আগে ‘জটিল প্রেম’, ‘বিজলী’সহ আরো বেশ কিছু সিনেমায় কণা প্লে-ব্যাক করেছেন। প্লে-ব্যাক’র বাইরে জামাল হোসেনের লেখা ‘চাঁদ উঠেছে’ গানটি নিয়ে ভীষণ আশাবাদী কণা।
কণা বলেন,‘ জামাল ভাইয়ের লেখা বেশকিছু গান বিভিন্ন শিল্পীর কন্ঠে আমার শোনা হয়েছে। চাঁদ উঠেছে মিষ্টি একটি গান। আমার রেশমী চুড়ি গানটি যেমন একটি আনন্দের গান ঠিক তেমনি চাঁদ উঠেছে গানটি তেমনি আনন্দের গান। শ্রোতারা গানটির সঙ্গে নিজেদেরকে আবেগ অনুভূতির সঙ্গে জড়িয়ে নিতে পারবে। গানটির সুর সঙ্গীত চমৎকার হয়েছে। আমার কাছে গানটি ভীষণ ভালোলেগেছে। শ্রোতা দর্শকের আশা করছি ভালোলাগবে। ধন্যবাদ জামাল ভাইকে এতো চমৎকার একটি গীতিকবিতায় আমাকে সম্পৃক্ত রাখার জন্য।’
‘চাঁদ উঠেছে’ গানের কথা হচ্ছে ‘চাঁদ উঠেছে ফুটেছে তারা, হেসেছে জোৎস্না কী যে বাঁধন হারা’। জামাল হোসেন বলেন, ‘কেন যেন মনে হলো এই গীতিকবিতা কণা’র কন্ঠেই বেশি মানাবে। তাই তাকে দিয়েই গানটি করানো হয়েছে। আশা করছি গানটি প্রকাশের পর শ্রোতা দর্শকের মন ছুঁয়ে যাবে।’
জানা যায়, ঈদ উপলক্ষ্যেই গানটি করা হয়েছে। ‘রঙ্গন মিউজিক’র ইউটিউব চ্যানেলে গানটি প্রকাশ পাবে। এদিকে কণা আপাতত কোন টিভি’র শো’র শুটিং-এ অংশ নিচ্ছেন না। গাজীপুরে নিজ গ্রামের বাড়িতেই স্বাচ্ছন্দ্যে সময় কাটাতেই বেশি ভালোলাগছে তার। করোনায় নাগরিক জীবনের কোলাহল থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতেই তিনি গাজীপুরে আছেন।
অবশ্য কণা এরইমধ্যে বাংলাদেশ পুলিশ’র জন্য একটি গান গেয়েছেন। গেয়েছেন আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের জন্য টাইটেল সং। সময় হলেই সেসব গানের বিস্তারিত জানাবেন তিনি। করোনা’ নিয়েও কয়েকটি গানে কন্ঠ দিয়েছেন কণা। যা এরইমধ্যে প্রকাশিতও হয়েছে। সমাজের মানুষকে করোনা বিষয়ে সচতেন করে তুলতেই তিনি করোনা’ বিষয়ক গানে কন্ঠ দিয়েছেন।
কণা বলেন, ‘সত্যি বলতে কী আমাদেরই দায়িত্ব মানুষকে সচেতন করা। শিল্পী হিসেবে আমার নিজের দায়িত্ববোধের জায়গা থেকেই করোনা সম্পৃক্ত গানগুলোতে কন্ঠ দিয়েছি। কারণ মানুষ মানুষের জন্য।’
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার